BMBF News

দুমকীতে অবৈধ ইটভাটায় সাড়ে ৪লাখ টাকা বিদুুৎ বিল বকেয়া

১০
দুমকী(পটুয়াখালী) প্রতিনিধি:

 

পটুয়াখালীর দুমকীতে একাধিকবার ভেঙ্গে দেয়া অবৈধ ইটভাটার প্রায় সাড়ে চার লাখ টাকার বকেয়া বিদ্যুৎ বিল আদায়ে লাল নোটিশ দিয়েছে পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ড। পটুয়াখালী পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির বাউফল আঞ্চলিক কার্যালয়ের ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজারের পক্ষে পল্লী বিদ্যুৎ বোর্ড আদালতের এডভোকেট আফজাল হোসেন উপজেলার জোয়ারগরবদি মৌজার লোহালিয়া নদীর পূর্বপাড়ে গড়ে ওঠা মেসার্স হাওলাদার ব্রিকস্ ফিল্ডের বকেয়া ৪লাখ ৫৬হাজার ৪শ’ ২৪ টাকা বিদ্যুৎ বিল পরিশোধে এ লাল নোটিশ প্রদান করেছেন।
সূত্রে জানাযায়, জেলার বাউফল উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মোতালেব হাওলাদার ৭/৮বছর আগে দুমকী উপজেলার জোয়ারগরবদি মৌজায় লোহালিয়া নদীর তীরে মেসার্স হাওলাদার ব্রিকস্ নামের ওই ইটভাটাটি তৈরী করেন এবং বিধি বহির্ভূত ভাবে বাউফল এরিয়া অফিস থেকে বিদ্যুৎ সংযোগ নিয়ে বিল পরিশোধ না করেই অবৈধ ইটভাটার ব্যবসা চালাচ্ছেন। ইটভাটাটির বৈধ কাগজপত্র না থাকায় ইতোপূর্বে দুমকী উপজেলা প্রশাসনের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযানে দু’দফায় তা ভেঙ্গে দিলেও রহস্যজন ভাবে কয়েকদিন পরই ফের চালু করা হয়। এতে প্রায় ৪লাখ ৫৬হাজার ৪শ’২৪টাকা বিদ্যুৎ বিল বকেয়া রয়েছে। বকেয়া বিদ্যুৎ বিল পরিশোধে বার বার তাগিদ সত্ত্বেও পরিশোধ না করায় গত বছরের ৫ই মে সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে। এবছরের ১৫ই জুন এ চুড়ান্ত লাল নোটিশ প্রদান করা হয়। নোটিশ প্রাপ্তির পরেও বকেয়া টাকা পরিশোধ করা না হলে আর্থিক ক্ষতিসহ আদালতে মামলা রুজুর কথাও উল্লেখ রয়েছে ওই নোটিশে । স্থানীয় বগা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ২ নম্বর ইউনিটের সভাপতি মালেক মৃধা আক্ষেপ করে বলেন, শুধু ইট ভাটাই নয় সে ( মোতালেব হাওলাদার) ইটভাটার পার্শ্ববর্তী তাঁর কবলাকৃত সম্পত্তির ৮—১০ টি দোকান জবরদখল করে ভোগ করছেন। প্রভাবশালী হওয়ায় বিভিন্ন জায়গায় লিখিত দিয়েও কোন লাভ হয়নি। ইটভাটা সংলগ্ন স্থানীয় কয়েকজন নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক জানান, বগা ইউনিয়নের আতঙ্কের নাম মোতালেব হাওলাদার। গুম খুনের ভয়ে কেউ প্রতিবাদ করার সাহস পায়না।
এ বিষয়ে ইটভাটার মালিক বাউফল উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল মোতালেব হাওলাদারের মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, ইট ভাটাটি তাঁর স্ত্রীর নামে ছিলো বর্তমানে তাঁর ছেলে এটি পরিচালনা করছেন । ভৌগলিক সীমানার বাইরে দুমকী উপজেলার জোয়ার গরবদি মৌজায় ইটভাটা পরিচালনা করার বৈধ কাগজপত্র রয়েছে কি না এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি জানান, আইনি বিষয় জানা ছিলো না। তবে পরিবেশ মন্ত্রণালয়ে নতুন নামে আবেদন করা হয়েছে। বকেয়া বিদ্যুৎ বিলের বিষয়ে বলেন, আমি ঢাকায় অবস্থান করায় বিস্তারিত জানিনা তবে বকেয়া বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ করা হবে।
এ বিষয়ে বাউফল উপজেলা পল্লীবিদ্যুত সমিতির ডিজিএম মজিবুর রহমান চৌধুরী তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, গত ১৫ই জুন ২০২৩ খ্রিঃ তারিখে লাল নোটিশ দেয়া হয়েছে। পরে উকিল নোটিশ পাঠানো হবে এর পরে মামলা দায়ের হবে।
দুমকী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আল ইমরান জানান, ইতোপূর্বে দুইবার অবৈধ ইটভাটা বন্ধে অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। সর্বশেষ ২০২১ সালে অভিযান পরিচালনা করা হয়। এর পরে ২০২২ সালে ইটভাটার কার্যক্রম সম্পূর্ণ বন্ধ ছিলো। যে কোন সময় আমরা অবৈধ ইটভাটা বন্ধে উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করবো।

Leave A Reply

Your email address will not be published.