BMBF News

প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদে দুমকিতে ইউপি চেয়ারম্যানের সংবাদ সম্মেলন

১৭৬
দুমকী,(পটুয়াখালী) প্রতিনিধি :

 

গত ১৮ ই জুন প্রকাশিত বাংলাদেশের প্রচলিত কিছু সংবাদ পত্রিকায় মিথ্যা, বানোয়াট এবং কিছু স্থানীয় লোকদের প্রভাবে সাংবাদিকদের ধারা ষড়যন্ত্রমূলক প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদের সংবাদ সম্মেলন করেছেন পটুয়াখালী জেলার দুমকি উপজেলার মুরাদিয়া ইউনিয়নের বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি মো: মিজানুর রহমান সিকদার।

 

২০ শে জুন মঙ্গলবার সকালে মুরাদিয়া ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্সের ভবনে এ প্রতিবাদ সংবাদ সম্মেলন করা হয়। এ সময় সংবাদ সম্মেলন উপস্থিত থাকেন দমকী উপজেলার বিশিষ্টজনসহ মুরাদিয়া ইউনিয়নের ইউ সদস্য এবং মুরাদিয়া ইউনিয়নের সর্বস্তরের জনগণ।

এ সময় মিজানুর রহমান সিকদার বলেন,

সংবাদপত্র হচ্ছে একটি গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রে চতুর্থ হয় । সংবাদপত্র আয়নার মতো সারাদেশের সৃষ্ট সংকট, সম্ভাবনা, অন্যায় অত্যাচার-নির্যাতন, অবিচার, সামাজিক অসংগতি ও অনিয়ম-দূর্ণীতি জাতির সামনে তুলে ধরে। এই সংবাদপত্রের প্রধান চালিকা শক্তি হলেন আপনারা। সৎ নির্ভিক সাংবাদিকতায় মারাত্মক ঝুঁকি উপেক্ষা করে নির্যাতিত মানুষের পাশে দাড়িয়ে সুবিচার প্রতিষ্ঠাসহ জাতির কল্যানে আপনারা একটি মহান পেশায় নিয়োজিত আছেন। আপনাদের সাহসী লেখনির মাধ্যমে সঠিক তথ্য দেশবাসীকে জানাতে আপনাদের সার্বিক সহযোগিতা প্রত্যাশা করছি।

তিনি আরো বলেন,

আমি মুরাদিয়া ইউনিয়ন পরিষদের দ্বিতীয় বারের মতো নির্বাচত চেয়ারম্যান হিসেবে শপথ নিয়ে ইউনিয়নবাসীর কল্যানে সবাইকে সাথে নিয়ে অত্যন্ত সততার সাথে দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছি। ঘুষ, দুর্নীতি, মাদকমুক্ত ইউনিয়ন গঠনে নিরলস প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। এলাকার দ্বন্দ-সংঘাত, জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধ, সহিংসতা, হানাহানি, সামাজিক অনাচার অসংগতি রোধে পারিবারিক আদালত ও স্থানীয় শালিস  ব্যবস্থার মাধ্যমে নিষ্পত্তি করাসহ সামাজিক শৃঙ্খলা রক্ষা ও সকল নাগরিকের শাস্তিপূর্ণ সহাবস্থান নিশ্চিত করে অক্লান্ত পরিশ্রম করে আসছি এবং ভবিষ্যতেও আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যাব।
মুরাদিয়া ইউনিয়নে সাম্প্রতিক কয়েকটি চুরিসহ বিভিন্ন অপরাধ প্রতিরোধে প্রশাসনের সমন্বয়ে সচেতনতামূলক সমাবেশ করেছি। সমাবেশে যুবসমাজকে মাদক ও সন্ত্রাসমুক্ত রাখতে ইতোমধ্যে জিরো টলারেন্স ঘোষনা করা হয়েছে। এখানে ভিজিডি, ভিজিএফ কার্ড বিতরণে আগে টাকা নেওয়ার অভিযোগ ছিল। আমি নির্বাচিত হয়ে সবাইকে এব্যাপারে কঠিন হুঁশিয়ারি দিয়েছি এবং পুরোপুরি বন্ধ করতে সংক্ষম হয়েছি। ভিজিডি, ভিজিএফ স্বচ্ছতার সাথে বিতরণের চেষ্টা করে যাচ্ছি। আমার সময়ে কখনোই পরিমানে কম হওয়া বা নাম বাদ পড়ার ঘটনা ঘটেনি। কিন্তু গত ১৮/০৬/২০১৩ তারিখ ভিজিডি চাল বিতরণ কিছুটা সমস্যা হয়েছে বলে শুনে তাৎক্ষণিক চাল দেয়া বন্ধ রেখেছি এবং দায়িত্বরত ইউপি সদস্য ও কয়েলদারকে প্রত্যাহার করে দেই। টাকা নেয়ার কথা উঠলে তাও বন্ধ করতে নির্দেশ দিয়েছি। এখবরটি আমার নির্বাচনী প্রতিপক্ষরা রংচং মেখে আরও ফুলিয়ে ফাপিয়ে একটি চটকলার অসত্য সংবাদ প্রকাশ করে আমার অত্র ইউনিয়ন পরিষদের সুনাম ও ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করার অপচেষ্টা করেছেন। আমি ওইসব বানোয়াট অসত্য তথ্যের মিথ্যে সংবাদের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। আর যারা এসব খণ্ডিত তথ্যে মিথ্যে সংবাদ প্রচার করে পরিষদকে হেয় করেছে ওইসব অপসাংবাদিকদের বস্তুনিষ্ট সংবাদ প্রকাশ করার জন্য আহ্বান জানাচ্ছি । একই সাথে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে তাৎক্ষনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করো সঠিক ভাবে বাকি ভিজিডি কাডধারী লোকজনদের চাল বিতরণ সম্পন্ন করা হয়েছে। এই সঠিক তথ্যটি জনস্বার্থে প্রকাশের জন্য আপনাদের প্রতি অনুরোধ জানান।

Leave A Reply

Your email address will not be published.